মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৯ August ২০২১

ভুমিকা

বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ (বিসিএসআইআর) বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে পরিচালিত দেশের বৃহত্তম মাল্টিডিসিপ্লিনারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান। এটি প্রখ্যাত বাঙালী বিজ্ঞানী ড. মুহাম্মদ কুদরাত-এ-খুদার হাত ধরে ১৯৫৫ সালে তৎকালীন পাকিস্থানের পুর্বাঞ্চলীয় গবেষণাগার হিসেবে এবং  ১৯৭৩ সালে বাংলাদেশের জাতির পিতা, মহান নেতা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রত্যক্ষ অনুপ্রেরণায় বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ (বিসিএসআইআর) নামে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটির কেন্দ্রীয় অঙ্গপ্রতিষ্ঠানসমূহ বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার ধানমন্ডির এলিফ্যান্ট রোডে অবস্থিত।

 

এই সংস্থা মুলত শিল্পগবেষণায় নিয়োজিত, তবে বেশ কিছু মৌলিক গবেষণাও এখানে পরিচালিত হয়। বাংলাদেশে বহুল প্রচলিত উন্নতচুলা, বায়োগ্যাস, স্পিরুলিনা, ফায়ার এস্টিংগুসার, সৌরবিদ্যুৎসহ অসংখ্য প্রযুক্তির সুতিকাগার হল এই প্রতিষ্ঠান, যা প্রতিষ্ঠার পর থেকে নতুন নতুন উদ্ভাবনের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন সেক্টরে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রেখে আসছে। এই প্রতিষ্ঠানটি এককভাবে বাংলাদেশের ৩৬৯টি পেটেন্টের উদ্ভাবন করেছে যা বাংলাদেশের মোট পেটেন্টের শতকতা ৫৩ শতাংশ। এটি প্রায় ১০১৬টি পণ্য উন্নয়ন করেছে, ৫৮০০টির অধিক বৈজ্ঞানিক প্রবন্ধ প্রকাশ করেছে। সম্প্রতি প্রকাশিত (২০২১) বিখ্যাত সিম্যাগো ইনস্টিটিউট র‍্যাংকিং-এ এটি স্থান করে নিয়েছে এবং এই র‍্যাংকিং অনুসারে এটি বাংলাদেশের একমাত্র সরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান যার বৈশ্বিক অবস্থান ৮০৬তম।

 

বর্তমানে এই গবেষণা প্রতিষ্ঠানে ৩২০ জন বিজ্ঞানীসহ মোট ১০৩৩ জন জনবল, ১২টি ইন্সটিটিউট এবং প্রায় ৬০টি গবেষণা বিভাগ রয়েছে।

 

বিসিএসআইআর এর ইন্সটিটিউটসমুহ:

১। বিসিএসআইআর গবেষণাগার, ঢাকা

২। বিসিএসআইআর গবেষণাগার, চট্রগ্রাম

৩। বিসিএসআইআর গবেষণাগার, রাজশাহী

৪। জ্বালানী গবেষণা ও উন্নয়ন ইনস্টিটিউট, ঢাকা

৫। খাদ্য বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ইনস্টিটিউট, ঢাকা

৬। পাইলট প্লান্ট ও পদ্ধতি উন্নয়ন কেন্দ্র, ঢাকা

৭। কাচ ও সিরামিক গবেষণা ও পরীক্ষণ ইনস্টিটিউট, ঢাকা

৮। আইএমএমএম, জয়পুরহাট

৯। চামড়া গবেষণা ইন্সটিটিউট, সাভার

১০। আইএনএআরএস, ঢাকা

১১। বায়োমেডিক্যাল এন্ড টক্সিকোলজিক্যাল ইইন্সটিটিউট, ঢাকা

১২। ইন্সটিটিউট অফ ইনোভেশন এন্ড টেকনোলজি ট্রান্সফার, ঢাকা

 

গবেষণার পাশাপাশি এটি বাংলাদেশের শিল্প কারখানাসমুহের বিভিন্ন কারিগরি, বুদ্ধিবৃত্তিক এবং বিশ্লেষণ সেবা দিয়ে আছে। এটি দেশী এবং বহুজাতিক কোম্পানি, বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সরকারি সংস্থাকে বছরে ৫৫০০টির অধিক বিশ্লেষণ সেবা অত্যন্ত সুলভমুল্য প্রদান করে থাকে। এটি বছরে ১৫০ জন দেশী এবং আন্তর্জাতিক গবেষককে ৩টি ক্যাটাগরিতে ফেলোশীপ প্রদানের মাধ্যেমে গবেষণার সুযোগ এবং দক্ষ করে তোলে। একই সাথে বছরে এটি ৩০০ জনের অধিক মাস্টার্স, পিএইচডি এবং পোস্ট ডক্টোরাল ছাত্রছাত্রীকে গবেষণা (থিসিস) তত্ত্বাবধায়ন করে থাকে।

 


Share with :

Facebook Facebook