মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৪ জুন ২০১৮

বাংলাদেশের প্রচলিত ডিজেল চালিত নৌকাকে সহজেই প্রতিস্থাপনযোগ্যরূপে সৌর শক্তি দ্বারা চালিত করার এবং প্রচলিত নৌকাসমূহ সৌর শক্তি দ্বারা চালনায় উন্নিতকরণের প্রযুক্তি বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদে বাস্তবায়ন হতে চলেছে।


প্রকাশন তারিখ : 2018-06-04

 

সৌর চালিত নৌকা

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান মহোদয়ের নির্দেশক্রমে বাংলাদেশের প্রচলিত ডিজেল চালিত নৌকাকে সহজেই প্রতিস্থাপনযোগ্যরূপে সৌর শক্তি দ্বারা চালিত করার এবং প্রচলিত নৌকাসমূহ সৌর শক্তি দ্বারা চালনায় উন্নিতকরণের প্রযুক্তি বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদে বাস্তবায়ন হতে চলেছে।

 

বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব মো: ফারুক আহমেদ মহোদয়ের পরামর্শে বাংলাদেশে বহুলব্যবহৃত ‘বাদাম নাও’ এর উপর সৌর শক্তি চালিত নৌকার উন্নয়ন জ্বালানি গবেষণা ও উন্নয়ন ইনস্টিটিউটে সংগঠিত হচ্ছে।

 

সৌর চালিত নৌকা

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান মহোদয়ের নির্দেশক্রমে বাংলাদেশের প্রচলিত ডিজেল চালিত নৌকাকে সহজেই প্রতিস্থাপনযোগ্যরূপে সৌর শক্তি দ্বারা চালিত করার এবং প্রচলিত নৌকাসমূহ সৌর শক্তি দ্বারা চালনায় উন্নিতকরণের প্রযুক্তি বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদে বাস্তবায়ন হতে চলেছে।

 

বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব মো: ফারুক আহমেদ মহোদয়ের পরামর্শে বাংলাদেশে বহুলব্যবহৃত ‘বাদাম নাও’ এর উপর সৌর শক্তি চালিত নৌকার উন্নয়ন জ্বালানি গবেষণা ও উন্নয়ন ইনস্টিটিউটে সংগঠিত হচ্ছে।

 

সৌর শক্তি চালিত নৌকা ইতিপূর্বে তৈরি করা হয়েছে। এগুলোর সবই নতুন ডিজাইনের। ফলে একজন মাঝিকে নতুন এই নৌকা কিনতে হয়, যা তার জন্য কষ্টসাধ্য। অধিকন্তু অধিক বর্ষা মৌসুমে বা কয়েকদিনের মেঘলা আবহাওয়ায় নৌকাসমূহ অকেজো হয়ে পড়ে। কারণ নৌকাসমূহের ডিজাইন এমনতর যে, হাল/বৈঠা দিয়ে চালনা করা সম্ভব নয়।

 

বাংলাদেশে বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ দেশীয় নৌকা ব্যবহার করছে। ফলে একজন মাঝি, যার যে রকম নৌকা রয়েছে, সেখানেই সে সৌর শক্তি চালিততে উন্নয়ন করতে পারবে। তাছাড়াও বর্তমানে ব্যবহৃত ডিজেল ইঞ্জিন চালিত নৌকাসমূহ অতি সহজেই সৌর শক্তি দ্বারা চালিত আকারে রূপান্তর করতে সক্ষম হবে। এই উন্নয়ন কাজে ব্যবহৃত সকল উপাদান দেশীয় বাজারে বহুল প্রাপ্যতা রয়েছে। ফলে ডিজেল ইঞ্জিন চালিত নৌকা, দেশীয় নৌকা, মালামাল ও পারাপারে ব্যবহৃত সকল ধরনের নৌকা স্বল্প খরচে, সহজলভ্য উপাদান ব্যবহার করে সৌর শক্তি চালিত নৌকায় রূপান্তর করে শব্দ ও বায়ু দূষণ রোধ এবং ডিজেল ব্যবহার হ্রাসে সহায়তা করবে।

 

সৌর শক্তি চালিত নৌকা ইতিপূর্বে তৈরি করা হয়েছে। এগুলোর সবই নতুন ডিজাইনের। ফলে একজন মাঝিকে নতুন এই নৌকা কিনতে হয়, যা তার জন্য কষ্টসাধ্য। অধিকন্তু অধিক বর্ষা মৌসুমে বা কয়েকদিনের মেঘলা আবহাওয়ায় নৌকাসমূহ অকেজো হয়ে পড়ে। কারণ নৌকাসমূহের ডিজাইন এমনতর যে, হাল/বৈঠা দিয়ে চালনা করা সম্ভব নয়।

 

বাংলাদেশে বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ দেশীয় নৌকা ব্যবহার করছে। ফলে একজন মাঝি, যার যে রকম নৌকা রয়েছে, সেখানেই সে সৌর শক্তি চালিততে উন্নয়ন করতে পারবে। তাছাড়াও বর্তমানে ব্যবহৃত ডিজেল ইঞ্জিন চালিত নৌকাসমূহ অতি সহজেই সৌর শক্তি দ্বারা চালিত আকারে রূপান্তর করতে সক্ষম হবে। এই উন্নয়ন কাজে ব্যবহৃত সকল উপাদান দেশীয় বাজারে বহুল প্রাপ্যতা রয়েছে। ফলে ডিজেল ইঞ্জিন চালিত নৌকা, দেশীয় নৌকা, মালামাল ও পারাপারে ব্যবহৃত সকল ধরনের নৌকা স্বল্প খরচে, সহজলভ্য উপাদান ব্যবহার করে সৌর শক্তি চালিত নৌকায় রূপান্তর করে শব্দ ও বায়ু দূষণ রোধ এবং ডিজেল ব্যবহার হ্রাসে সহায়তা করবে।


Share with :

Facebook Facebook